আত্ম-অভিশাপ

211 Views

Spread the love

 


পশ্চিমে ডুবে যেতে যেতে তোমাকে দিয়ে যাবো অগণিত নক্ষত্রের রাত। মুক্তির দামামায় তুমি উন্মোচন করবে নিশিগন্ধা ফুল। না খুশবু, না পাপড়ি, কোথাও থাকবে না আমার নামের বরাত।



গ্রন্থি ও গ্লানির মোড়ক খুলে পোষ না মানা পাখির মতো একদিন উড়ে যাবো থোকা থোকা অভিশাপের ডালাতে । সীমানার প্রাচীর ডিঙিয়ে ক্ষিপ্ত বাতাসের শিষে মিশে যাবে যাবতীয় ক্রন্দন। না বারণ না তাড়ন আমাকে ধারণ করবে উচ্ছনে যাওয়া মেঘ। আর নয় সাধু সাধু সাজ, ঢ্যালাচাপা ক্লোরোফিলহীন ইচ্ছের ঘাস এবার খুঁজে নিবে রোদ, উত্তাপ। রক্তচোখ, ভয় সব ফেলে আপন উচ্ছ্বাসে কলঙ্কের ভাঁজে ভাঁজে মেলে দিবো ডানা। পশ্চিমে ডুবে যেতে যেতে তোমাকে দিয়ে যাবো অগণিত নক্ষত্রের রাত। মুক্তির দামামায় তুমি উন্মোচন করবে নিশিগন্ধা ফুল। না খুশবু, না পাপড়ি, কোথাও থাকবে না আমার নামের বরাত। আমাকে দিও বেঈমান উপাধি, আমাকে দিও বদনামের ঝাপি, অভিশাপে অভিশাপে আমাকে দিও হাবিয়া দোজখের চাবি।

 


উড়িয়ে দিয়ে সকল দস্তাবেজ, অগ্রাহ্য করে যাবতীয় কোরান, বাইবেল, বেদ, আমি হবো হাবিয়াগামী ফুল। আমি হবো এক অবাধ্য ঘূর্ণি, ছন্নছাড়া মেঘ; আমি হবো কৃষ্ণাঙ্গ কাক, কাদাখোঁচা পাখি।




জানি, আমাকে ছুঁবে না ফুল, আমাকে ছুঁবে না অর্ঘ্য! চাইনা মঙ্গলবারতা-আশীর্বাদ, ছুড়ে দিয়ে দাক্ষিণ্যের কড়ি, উড়িয়ে দিয়ে সকল দস্তাবেজ, অগ্রাহ্য করে যাবতীয় কোরান, বাইবেল, বেদ, আমি হবো হাবিয়াগামী ফুল। আমি হবো এক অবাধ্য ঘূর্ণি, ছন্নছাড়া মেঘ; আমি হবো কৃষ্ণাঙ্গ কাক, কাদাখোঁচা পাখি। চঞ্চুতে মেখে দুর্গন্ধী তোমাকে করবো নির্ভার, নিস্কলুষ, উত্তম পুরুষ। স্পর্শ বা সংস্পর্শের বাইরে আমি চলে যাবো গন্তব্যহীন, প্রত্যাবর্তনের সব পথ রুদ্ধ করে।

জানো তো, গন্তব্য হারিয়ে গেলে পাখিরা ভুলে যায় দিকের নিশানা, উড়ার ব্যাকরণ? দিকহীন ভুলভাল উড়াউড়ি শেষে পালকে লিখে নেয় মৃত্যুর নাম।

 


কবি

সীমা শামীমা।

মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থানার মেয়ে।

জন্ম—পহেলা জুলাই, ১৯৭৭ সালে  ।

 

প্রথম কবিতাবই—

নীরবে নিভৃতে (২০১৬), টুম্পা প্রকাশনী|

দ্বিতীয় কবিতাবই—

C/O ইব্রাহীম (২০২০), জলকথা প্রকাশনী।

 

 



One response to “আত্ম-অভিশাপ”

  1. sadia sultana says:

    কী সুন্দর…গন্তব্য হারিয়ে গেলে পাখিরা ভুলে যায় দিকের নিশানা, উড়ার ব্যাকরণ? দিকহীন ভুলভাল উড়াউড়ি শেষে পালকে লিখে নেয় মৃত্যুর নাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *